সর্বাধুনিক ডিজিটাল প্রযুক্তির সুবিধা; গ্রামে দ্রুতগতিতে পৌঁছে যাচ্ছে ইন্টারনেট!

৫ অক্টোবার, ২০২০ ০৬:২২ pm

বর্তমান প্রতিদিন ডেস্ক:

ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে নতুন মাইলফলক স্থাপনের দ্বারপ্রান্তে বাংলাদেশ। ফাইবার অপটিক নেটওয়ার্ক এখন ইউনিয়ন পর্যন্ত বিস্তৃত হওয়ায় গ্রামে গ্রামে দ্রুতগতির ইন্টারনেট পৌঁছে যাচ্ছে। এর ফলে তৃণমূলের মানুষকে আরও বেশি ডিজিটাল সেবার আওতায় নিয়ে আসার পথ সুগম হয়েছে।

 

অনুসন্ধানে দেখা গেছে, ২ হাজার ৬শত ইউনিয়নে নেটওয়ার্ক স্থাপনের প্রকল্প নিয়ে শুরু হওয়া ইনফো সরকার-৩-এর কাজ এরই মধ্যে প্রায় ৯০ শতাংশ সম্পন্ন হয়েছে। চলতি বছরের ডিসেম্বরের মধ্যেই শেষ হবে পুরো প্রকল্পের কাজ। এ প্রকল্পের বাস্তবায়ন ঘটলে দেশের প্রায় ৬০ শতাংশ ভৌগোলিক এলাকার ১০ কোটি মানুষের কাছে উচ্চগতির ইন্টারনেট সুবিধা পৌঁছে যাবে।

 

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের অধীনে দেশের দুটি বেসরকারি এনটিটিএন কোম্পানি ফাইবার অ্যাট হোম এবং সামিট কমিউনিকেশন এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। এ প্রকল্পে সর্বাধুনিক প্রযুক্তি সহায়তা ও যন্ত্রপাতি সরবরাহ করছে চীনের বিশ্বখ্যাত কোম্পানি হুয়াওয়ে।

 

প্রকল্প পরিচালক বিকর্ণ কুমার ঘোষ বলেন, ইনফো সরকার-৩ প্রকল্পটি আগামী ডিসেম্বরের মধ্যেই শেষ হবে। এ প্রকল্পের মাধ্যমে একেবারে গ্রাম পর্যায়ে উচ্চগতির ইন্টারনেট সুবিধা পৌঁছে যাচ্ছে। এরই মধ্যে উপজেলা পর্যায়ে এক হাজার পুলিশ স্টেশনে এ প্রকল্পের মাধ্যমে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সংযোগ দেওয়া হয়েছে। প্রকল্পের কাজ শেষ হলে এটি রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্বে থাকবে পাবলিক-প্রাইভেট পার্টনারশিপের আওতায় বেসরকারি দুটি প্রতিষ্ঠান। আইএসপি প্রতিষ্ঠানগুলো এর মাধ্যমে গ্রাম পর্যায়ে ইন্টারনেট সেবা দেওয়ার সুযোগ পাবে। এ প্রকল্পের ফলে শহর ও গ্রামের ডিজিটাল বৈষম্য দূর হবে, গ্রামে সর্বাধুনিক ডিজিটাল প্রযুক্তির সুবিধা সহজে পৌঁছে যাবে।

 

এক নজরে ইনফো সরকার-৩: তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের অধীনে ইউনিয়ন পরিষদ পর্যায়ে দুই হাজার ৬শত ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সেবা পৌঁছে দেওয়ার জন্য তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের অধীন বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি) ইনফো সরকার-৩ প্রকল্প হাতে নেয় ২০১৬ সালে।

 

এর আগে বিসিসি উপজেলা পর্যায়ে সরকারি অফিসে ব্রডব্যান্ড সেবা দেওয়ার জন্য ইনফো সরকার-২ প্রকল্প বাস্তবায়ন করে। এর ধারাবাহিকতায় ইউনিয়ন পর্যায়ে সেবা পৌঁছে দিতে ইনফো সরকার-৩ প্রকল্পটি নেওয়া হয়। ২০১৬ সালে প্রকল্প নেওয়া হলেও দরপত্র প্রক্রিয়া শেষ করে এটি বাস্তবায়নের জন্য সংশ্নিষ্টদের কার্যাদেশ দেওয়া হয় ২০১৭ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর।

 

ইনফো সরকার-৩ প্রকল্পটির মোট ব্যয় ধরা হয়েছে এক হাজার ৯৯৯ কোটি ৫০ লাখ টাকা। এর মধ্যে চীন সরকারের কাছ থেকে ঋণ হিসেবে নেওয়া হচ্ছে এক হাজার ২২৭ কোটি টাকা এবং সরকার বহন করছে ৭৭২ কোটি টাকা।

 

প্রকল্প বাস্তবায়নের বর্তমান চিত্র: প্রকল্পের তথ্য অনুযায়ী, ৬৩টি উপজেলার ৪৪৮টি উপজেলার দুই হাজার ৬০০ ইউনিয়নে এ প্রকল্পের আওতায় ফাইবার অপটিক কেবলের মাধ্যমে ব্রডব্যান্ড নেটওয়ার্ক স্থাপন করা হচ্ছে। এর মধ্যে ৩২ জেলার ২৪৭ উপজেলার এক হাজার ৩০৭টি ইউনিয়নে প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে ফাইবার অ্যাট হোম।

 

এই প্রতিষ্ঠানের জনসংযোগ ও রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্সের প্রধান আব্বাস ফারুক জানায়, এরই মধ্যে তাদের প্রতিষ্ঠান এক হাজার ২৫২টি ইউনিয়নে কাজ সম্পন্ন করেছে। এই ইউনিয়নগুলো এখন ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সেবার জন্য সম্পূর্ণ প্রস্তুত। বাকিগুলোর কাজ ডিসেম্বরের মধ্যেই শেষ হবে। এ প্রকল্পের মাধ্যমে বর্তমানে জেলা পর্যায়ে ১শত জিবিপিএস, উপজেলা পর্যায়ে ১০ জিবিপিএস এবং ইউনিয়ন পর্যায়ে নূ্যনতম এক জিবিপিএস ডাটা ট্রান্সমিশন সক্ষমতায় উন্নীত হয়েছে। এ প্রকল্প থেকে শহর ও গ্রামের মধ্যে ডিজিটাল বৈষম্যও দূর হবে। কারণ প্রায় ৬০ শতাংশ ভৌগোলিক এলাকায় ১০ কোটি মানুষের কাছে উচ্চগতির ইন্টারনেট সুবিধা পৌঁছে যাবে। তখন আউটসোর্সিংয়ের মাধ্যমে তরুণ জনগোষ্ঠীর কর্মসংস্থান হবে। গ্রাম পর্যায়ে সরকারি সেবায় আরও স্বচ্ছতা আসবে।

 

বিসিসির প্রকল্পের অগ্রগতির প্রতিবেদন থেকে দেখা যায়, সামিট কমিউনিকেশন এক হাজার ১২৬টি ইউনিয়নে কাজ সম্পন্ন করেছে। প্রকল্পের শর্ত অনুযায়ী দুটি বেসরকারি এনটিটিএন কোম্পানি নির্মাণের পর পুরো নেটওয়ার্ক পরিচালনা করবে এবং ২০ বছর মেয়াদে রক্ষণাবেক্ষণ করবে। প্রকল্পে ট্রান্সমিশন লিঙ্ক স্থাপনে সর্বাধুনিক ডিডব্লিউডিএম প্রযুক্তি ব্যবহার করা হচ্ছে।

 

প্রকল্প-সংশ্নিষ্ট সূত্র জানায়, প্রকল্পে ট্রান্সমিশন লিঙ্ক নির্মাণে ১শত জিবি সক্ষমতার ডিডব্লিউডিএম কার্ড ব্যবহার করা হয়েছে। এরই মধ্যে যেসব ইউনিয়নে লিঙ্ক স্থাপন এবং নেটওয়ার্ক নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে, সেসব ইউনিয়নে এখনই ব্রডব্যান্ড সুবিধা পাওয়া সম্ভব হচ্ছে। পরীক্ষামূলকভাবে সেবাদানের কাজও চলছে। পুরো প্রকল্পের নির্মাণ কাজ শেষ করে নেটওয়ার্কের সক্ষমতার পূর্ণাঙ্গ পরীক্ষার পরই সাধারণ পর্যায়ে এ নেটওয়ার্ক ব্যবহারের জন্য উদ্বোধন করা হবে। এ নেটওয়ার্কে ট্রান্সমিশন সেবা দুটি বেসরকারি এনটিটিএন কোম্পানি দেবে। আর গ্রাহক পর্যায়ে সেবা পৌঁছে দেবে ইন্টারনেট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলো।

কাজিপুরে নৌকা প্রতীক পেলেন নাসিম পুত্র প্রকৌশলী তানভীর শাকিল জয়

কাজিপুরে নৌকা প্রতীক পেলেন নাসিম পুত্র প্রকৌশলী তানভীর শাকিল জয়

কাজিপুর প্রতিনিধি: সিরাজগঞ্জের কাজিপুরে উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী হিসাবে সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম সাহেবের পুত্র প্রকৌশলী তানভীর শাকিল জয়কে নৌকা প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। বিস্তারিত →

উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে জয়পুরহাট পৌরবাসীর সহযোগিতা চাইলেন পৌর মেয়র মোস্তাক

উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে জয়পুরহাট পৌরবাসীর সহযোগিতা চাইলেন পৌর মেয়র মোস্তাক

জয়পুরহাট প্রতিধি: চলমান উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে জয়পুরহাট পৌরবাসীর সহযোগিতা চাইলনে এবং যেকোনো প্রয়োজনে সাধারণ মানুষের পাশে থাকবেন বলে মন্তব্য করেছেন জয়পুরহাট পৌরসভার মেয়র মোস্তাফিজুর বিস্তারিত →

নন্দীগ্রামে খেজুর গাছ প্রস্তুত করতে ব্যাস্ত গাছিড়া

নন্দীগ্রামে খেজুর গাছ প্রস্তুত করতে ব্যাস্ত গাছিড়া

নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি: হেমন্তের শিশিরে ভেজা সকাল বেলায় খেজুর গাছের রসে ভড়া হাড়ি নামানোর জন্য গাছিড়া এখন খেজুর গাছ ঝুড়তে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে। এখন দিনের বিস্তারিত →

কুমিল্লায় বিপুল পরিমান ইয়াবাসহ একজন আটক!

কুমিল্লায় বিপুল পরিমান ইয়াবাসহ একজন আটক!

স্টাফ রিপোর্টার: কুমিল্লা কোতয়ালি থানাধীন হতে ইয়াবা পাচারকালে ২ হাজার ৩শত ৬৫ পিস ইয়াবাসহ সুমন সাহা (৩৬) নামের একজন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাব-১১।   বিস্তারিত →

কোন দুর্ঘটনা ঘটলে চালকের গায়ে হাত না দিয়ে দুর্ঘটনার শিকার মানুষটির চিকিৎসার ব্যবস্থা নিতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

কোন দুর্ঘটনা ঘটলে চালকের গায়ে হাত না দিয়ে দুর্ঘটনার শিকার মানুষটির চিকিৎসার ব্যবস্থা নিতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

বর্তমান প্রতিদিন ডেস্ক: সড়ক নির্মাণের সময় প্রাকৃতিক ভারসাম্য বজায় রাখার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৃহস্পতিবার (২২ অক্টোবর) নিরাপদ সড়ক দিবসের বক্তব্যে এ নির্দেশনা দেন বিস্তারিত →

ভিডিও দেখতে ক্লিক করুন

সর্বশেষ খবর

Archives

SatSunMonTueWedThuFri
     12
24252627282930
31      
   1234
       
    123
45678910
25262728293031
       
  12345
27282930   
       
29      
       
      1
       
    123
18192021222324
       
      1
16171819202122
30      
     12
       
    123
       
14151617181920
21222324252627
28293031   
       
      1
2345678
30      
     12
       
    123
25262728   
       
      1
2345678
9101112131415
3031     
      1
30      
   1234
567891011