ফেইসবুক, টুইটার, ইউটিউব শিগগিরই নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে

১৩ সেপ্টেম্বার, ২০২১ ০১:০৬ pm

বর্তমান প্রতিদিন ডেস্ক:
বাংলাদেশকে এক সময় তেমন পাত্তা দিত না ফেইসবুক, টুইটার, ইউটিউবসহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলো।
কিন্তু এখন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলো আমাদের কথা শুনছে, নিয়মিত বৈঠক করছে আমাদের সাথে।এমনকি বাংলাদেশের আইন মেনে ভ্যাট-ট্যাক্সও দিচ্ছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলো। সেদিন আর বেশি দূরে নয়, যখন ফেসবুকসহ সকল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম আমাদের নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে। যদিও এই বিষয়টি আমাদের জন্য বড় একটি চ্যালেঞ্জ। তারপরও এই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সর্বোচ্চ চেষ্টা করছে বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকার। ফেসবুক এবং অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোতে ‘সরকার ও রাষ্ট্রবিরোধী’সহ বিভিন্ন রকম ‘আপত্তিকর’ কনটেন্ট ছড়ানো হচ্ছে। এ বিষয়ে সরকার কী ধরনের পদক্ষেপ নিচ্ছে? এমন প্রশ্নের জবাবে গতকাল ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার সংবাদমাধ্যমকে উল্লিখিত কথাগুলো বলেছেন।

 

তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘এসব বিষয়ে এখন আমরা অনেক দক্ষতা অর্জন করেছি। আমরা এখন জানি বিদেশ থেকে কারা এ ধরনের অপপ্রচার চালাচ্ছে। আমি দায়িত্ব নেওয়ার পর ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারিতে ফেসবুক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে একটি আন্তর্জাতিক সম্মেলনে প্রথমবারের মতো আনুষ্ঠানিকভাবে কথা বলার সুযোগ হয়েছিল। সেখানে কিছু দাবি তুলে ধরাসহ সার্বিক বিষয়ে কথা হয়েছিল তার সাথে। তারাও এসব বিষয়ে ইতিবাচক মনোভাব দেখিয়েছে। বর্তমানে তাদের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক এমন পর্যায়ে এসেছে যে তারা প্রতি সপ্তাহে আমাদের সঙ্গে বৈঠক করে, প্রতিদিন কথা হচ্ছে। যে সব বিষয়ে রিপোর্ট করি সে বিষয়েও রেসপন্স করছে। ফেসবুকের বিষয়ে বাংলাদেশের দায়িত্বপ্রাপ্ত একজন মহিলা কর্মকর্তা রয়েছেন, সিঙ্গাপুর ও দিল্লিতে একজন করে কর্মকর্তা রয়েছেন তাদের প্রত্যেকের সঙ্গে আমাদের বিটিআরসির সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তার নানা বিষয়ে কথা হচ্ছে। এক সময় হয়তো তারা আমাদের কোনোটাই পাত্তা দিত না। এখন অনেক ভালো জায়গায় এসেছে। ’

ফেইসবুক, টুইটার, ইউটিউব শিগগিরই নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে

ফেসবুক কর্র্তৃপক্ষের এক সময় বাংলা বোঝার মতো কোন লোক ছিল না উল্লেখ করে মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন,
একসময় ফেসবুকের বাংলা ভাষা বোঝার মতো লোক ছিল না, বাংলা কনটেন্ট সরাতে পারত না। এখন তাদের বাংলা ভাষা বোঝার মতো লোক রয়েছে। তারা বাংলা কনটেন্ট বুঝতে পারে এবং তা সরাতেও পারছে। এখন তাদের সঙ্গে আমাদের সরাসরি ফোনেও যোগাযোগ হচ্ছে। আমরা মনিটরিং ব্যবস্থাটাকে সম্প্রসারণ করেছি বিটিআরসির মাধ্যমে। আরও কিছু যন্ত্রপাতি সংগ্রহের চেষ্টা করছি। এর ফলে আমি আশা করছি যে সেদিন হয়তো বেশি দূরে নয়, যখন আমরা মোটামুটি এদের ভালো নিয়ন্ত্রণের মধ্যে আনতে পারব। এখন যে অবস্থায় আছে, সেটা মোটামুটি একটা নিয়ন্ত্রণের ভিতর। কিন্তু আমাদের জন্য অত্যন্ত হুমকির বিষয় হলো জেএমবি, আইএস, তালেবান যাই বলি না কেন তারা প্লাটফরম হিসেবে এসব সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করছে।
অনেকে ব্যক্তিগতভাবেই সরকারের শীর্ষ ব্যক্তি থেকে শুরু করে মন্ত্রী, এমপিসহ গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে অপপ্রচারের প্লাটফরম হিসেবে এসব ব্যবহার করছে। নিয়মিত গণমাধ্যমে এসব অপকর্ম করা যায় না। এসব নিয়ন্ত্রণে তাদের সঙ্গে আমাদের নিয়মিত কথা হচ্ছে। এক সময় পাত্তা না দিলেও এখন নিয়মিত যোগাযোগ হচ্ছে। তারা আমাদের ভ্যাট-ট্যাক্সও দিচ্ছে।

 

আইটি বিশেষজ্ঞ এই মন্ত্রী আরও বলেছেন-ফেসবুক, ইউটিউব, টুইটারসহ সোশ্যাল মিডিয়া এখন বিশ্বজুড়ে জনপ্রিয়।
বাংলাদেশেও এর ব্যতিক্রম নয়। আমাদের দেশে ফেসবুকের প্রায় ৪ কোটি ইউজার রয়েছে। ইউটিউবের হয়তো এত নেই।
বাংলাদেশ জন্মের শুরু থেকেই কিছু লোক বিরোধিতা করেছে, এখনো করছে। দেশের ভিতরে যেমন রয়েছে,
তেমনি বিদেশেও রয়েছে। তারা কখনো নীরব ছিল না। তারা পরিকল্পিতভাবে সরকার ও সরকারের গুরুত্বপূর্ণ
নেতাদের এবং সন্ত্রাস, নৈরাজ্য, সাম্প্রদায়িকতার বিষয়ে ইচ্ছামতো প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছে। দেশে এ ধরনের কাজ
করলে সহজেই চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনতে পারি। কিন্তু যারা বিদেশে বসে এসব করছে তাদের ধরাই বড় চ্যালেঞ্জ।
আবার এসব ব্যক্তির অ্যাকাউন্টও বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ভুয়া হয়ে থাকে। ফলে তাদের শনাক্ত করাও কঠিন।
তারা ইচ্ছামতো নাম দিয়ে অ্যাকাউন্ট খুলে এসব প্রচারণা চালাচ্ছে। ফলে এটি শনাক্ত করাও একটি বড় চ্যালেঞ্জ।
তারপরও আমাদের আইসিটি ডিভিশন, বিটিআরসি, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ সংশ্লিষ্টরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করছে।
কিছু বিষয়ে সুফলও পেয়েছি আমরা।

 

ইচ্ছা করলে টোটাল সোশ্যাল মিডিয়া ‘শাট ডাউন’ করতে পারি উল্লেখ করে আইটি বিশেষজ্ঞেএই মন্ত্রী বলেছেন,
‘সরকার ও রাষ্ট্রবিরোধী’সহ বিভিন্ন রকম ‘আপত্তিকর’ কনটেন্ট প্রচারকারী, ওয়েবসাইট,
পেজ বা অ্যাকাউন্ট আমরা বাংলাদেশে যে কোনো মুহূর্তে বন্ধ করতে পারি, কিন্তু বাইরের দেশে নয়।
আমি দায়িত্ব নেওয়ার পর একটি প্রকল্পের মাধ্যমে ২২ হাজার পর্নো সাইট ও ৬ হাজার ভুয়া সাইট বন্ধ করেছি।
এ ছাড়া ১১০০-এর বেশি ক্ষতিকর ওয়েবসাইট বন্ধ করা হয়েছে। সেগুলো দেশের অখন্ডতা রক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ
ভূমিকা রেখেছে বলে মনে করি। দেশের কোনো অ্যাকাউন্ট, সাইট, ইউটিউব চ্যানেল থেকে দেশবিরোধী কনটেন্ট,
ব্যক্তিবিরোধী, সম্মানহানিকর কোনো তথ্য বা এসব বিষয়ে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে আমাদের আইনশৃঙ্খলা
রক্ষাকারী বাহিনীসহ সংশ্লিষ্ট সংস্থার মাধ্যমে আইনের আওতায় আনা হয়ে থাকে।

খুব সহজেই তৈরি করুন সুস্বাদু ইলিশ বিরিয়ানি

খুব সহজেই তৈরি করুন সুস্বাদু ইলিশ বিরিয়ানি

বর্তমান প্রতিদিন ডেস্ক: ইলিশ মাছ দিয়ে বিরিয়ানি বানালে কেমন হয়? এটা ঠিক মাংস ছাড়া বিরিয়ানির কথা ভাবাই যায় না। অনেক নামী রেষ্টুরেন্টের মেনুর তালিকাতেও জায়গা বিস্তারিত →

বাংলাদেশে হবে সাংবিধানিক সরকার, আর কোনো তত্ত্বাবধায়ক সরকার হবে না: কৃষিমন্ত্রী

বাংলাদেশে হবে সাংবিধানিক সরকার, আর কোনো তত্ত্বাবধায়ক সরকার হবে না: কৃষিমন্ত্রী

বর্তমান প্রতিদিন ডেস্ক: বাংলাদেশে আর কোনো তত্ত্বাবধায়ক সরকার হবে না বলেছেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক।   শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সকালে বিস্তারিত →

প্রস্রাবে ইনফেকশনের প্রাথমিক লক্ষণ ও কয়েকটি কার্যকরী ঘরোয়া প্রতিকার

প্রস্রাবে ইনফেকশনের প্রাথমিক লক্ষণ ও কয়েকটি কার্যকরী ঘরোয়া প্রতিকার

  বর্তমান প্রতিদিন ডেস্ক: সারা দিনে আমরা যত পানি খেয়ে থাকি তা আমাদের কিডনির মাধ্যমে ছেঁকে মূত্রনালি দিয়ে মূত্র হিসেবে বের হয়ে যায়। প্রস্রাবে ইনফেকশন বিস্তারিত →

চীন থেকে এলো সিনোফার্মের আরও ৫০ লাখ টিকা

চীন থেকে এলো সিনোফার্মের আরও ৫০ লাখ টিকা

বর্তমান প্রতিদিন ডেস্ক: চীন থেকে কেনা সিনোফার্মের আরও ৫০ লাখ ডোজ টিকার চালান দেশে পৌঁছেছে।   শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত পৌনে ১টার দিকে বাংলাদেশ বিস্তারিত →

তাহসান-ফারিয়া ইভ্যালির সঙ্গে নেই জানিয়ে যা বললেন

তাহসান-ফারিয়া ইভ্যালির সঙ্গে নেই জানিয়ে যা বললেন

বর্তমান প্রতিদিন ডেস্ক: ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ রাসেল ও তার স্ত্রী প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিনকে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়। অভিনেতা-গায়ক বিস্তারিত →

ভিডিও দেখতে ক্লিক করুন

সর্বশেষ খবর

Archives

SatSunMonTueWedThuFri
    123
18192021222324
252627282930 
       
     12
31      
   1234
567891011
12131415161718
       
891011121314
293031    
       
     12
10111213141516
       
  12345
6789101112
2728293031  
       
  12345
6789101112
2728     
       
      1
3031     
   1234
       
    123
45678910
25262728293031
       
  12345
27282930   
       
29      
       
      1
       
    123
18192021222324
       
      1
16171819202122
30      
     12
       
    123
       
14151617181920
21222324252627
28293031   
       
      1
2345678
30      
     12
       
    123
25262728   
       
      1
2345678
9101112131415
3031     
      1
30      
   1234
567891011