দেখুন আল্লাহর অনুগ্রহ লাভের সহজ উপায়

৬ জানুয়ারি, ২০২১ ০২:৩৩ pm

বর্তমান প্রতিদিন ডেস্ক:

সবার ও সব কিছুর স্রষ্টা একমাত্র আল্লাহ রাব্বুল আলামিন। তিনিই আমাদের দুনিয়ায় পাঠিয়েছেন। নবী-রাসুল ও আসমানি কিতাব নাজিল করে জানিয়ে দিয়েছেন, আমরা এ দুনিয়ায় চিরকাল থাকতে পারব না। আমাদের এ পার্থিব জগৎ ছাড়তে হবে। এ জীবনের পর অনন্ত কালের আরেকটি জীবন আছে। যে জীবনের পাথেয় ও পুঁজি হাসিলের জন্যই আমাদের প্রেরণ করা হয়েছে। সেই জীবনে আল্লাহর রহমত ছাড়া কেউ পার পাবে না। রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘তোমাদের কেউ শুধু তার আমল দ্বারা জান্নাতে প্রবেশ করতে পারবে না…।’ (মুসনাদে আহমাদ, হাদিস : ৭৪৭৯)

 

নেক আমলের পাশাপাশি আল্লাহর রহমত থাকলেই নাজাত পাওয়া যাবে, সফলকাম হওয়া যাবে। আল্লাহর রহমত লাভের সবচেয়ে সহজ পথ হলো তাঁর সৃষ্টির প্রতি সহযোগিতা ও উপকারের হাত বাড়িয়ে দেওয়া।

 

যে আমল জান্নাতিরা করেন : জান্নাতিদের আলোচনায় মহান আল্লাহ বলেছেন, ‘তারা আল্লাহর প্রেমে অভাবগ্রস্ত, এতিম ও বন্দিকে আহার্য দান করে। তারা বলে, শুধু আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য আমরা তোমাদের আহার দান করি এবং তোমাদের কাছে কোনো প্রতিদান ও কৃতজ্ঞতা কামনা করি না।’ (সুরা : দাহর, আয়াত : ৮-৯)

 

যে আমলে শঙ্কামুক্ত হওয়া যায় : সুরা আলাকের প্রথম পাঁচ আয়াত নাজিল হলে নবীজি (সা.) ভয় পেয়ে যান। নবীজির প্রতি এটিই ছিল প্রথম ওহি নাজিলের ঘটনা। স্বীয় স্ত্রী খাদিজা (রা.)-এর কাছে ফিরে এসে বলেন, ‘আমি নিজের ব্যাপারে আশঙ্কা বোধ করছি।’ খাদিজা (রা.) বলেন, আল্লাহর কসম, কখনো নয়। আল্লাহ আপনাকে কখনো অপমানিত করবেন না। আপনি তো আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে সদ্ব্যবহার করেন, অসহায়-দুর্বলের দায়িত্ব বহন করেন, নিঃস্বকে সাহায্য করেন, মেহমানের মেহমানদারি করেন এবং দুর্দশাগ্রস্তকে সাহায্য করেন…। (বুখারি, হাদিস : ৩)

 

যে আমলে অপমৃত্যু থেকে রক্ষা পাওয়া যায় : রাসুল (সা.) বলেন, ‘মানবকল্যাণমুখী কাজ বিপদাপদ ও অপমৃত্যু থেকে রক্ষা করে। গোপন দান আল্লাহর ক্রোধ নির্বাপিত করে। রক্তসম্পর্কীয় আত্মীয়তার সম্পর্ক রক্ষা করা আয়ু বৃদ্ধি করে। (মাজমাউজ জাওয়ায়েদ : ৩/১১৫)

 

যে আমলে নবীজির পাশের জান্নাতে থাকা যাবে : রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি এতিম-অনাথের রক্ষণাবেক্ষণ বা লালনপালন করে সে আমার সঙ্গে পাশাপাশি জান্নাতে থাকবে। এ কথা বলে—তিনি মধ্যমা ও তর্জনী আঙুল পাশাপাশি রেখে দেখান।’ (তিরমিজি, হাদিস : ১৯১৮)

 

যাদের সেবা আল্লাহর সেবার নামান্তর : রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘কিয়ামতের দিন মহান আল্লাহ বলবেন, হে আদম সন্তান, আমি অসুস্থ হয়েছিলাম। কিন্তু তুমি আমাকে দেখতে যাওনি! সে বলবে, হে রব, আপনি তো রাব্বুল আলামিন। আমি কিভাবে আপনাকে দেখতে যাব? তিনি বলবেন, তুমি তো জেনেছিলে যে আমার অমুক বান্দা অসুস্থ হয়েছিল। তবু তুমি তাকে দেখতে যাওনি। তুমি কি জানতে না যে তুমি যদি তাকে দেখতে যেতে তাহলে আমাকে তার কাছে পেতে। হে আদম সন্তান, আমি তোমার কাছে খাদ্য চেয়েছিলাম। কিন্তু তুমি আমাকে খাদ্য দাওনি। সে বলবে, হে রব, আপনি তো রাব্বুল আলামিন। আমি কিভাবে আপনাকে খাদ্য দেব? তিনি বলবেন, তুমি তো জেনেছিলে যে আমার অমুক বান্দা তোমার কাছে খাদ্য চেয়েছিল। কিন্তু তুমি তাকে খাদ্য দাওনি। তুমি কি জানতে না যে তুমি যদি তাকে খাদ্য দিতে তাহলে আমাকে তার কাছে পেতে। হে আদম সন্তান, আমি তোমার কাছে পানি পান করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু তুমি আমাকে পানি দাওনি। সে বলবে, হে রব, আপনি তো রাব্বুল আলামিন। আমি কিভাবে আপনাকে পানি পান করতে দেব? তিনি বলবেন, তুমি তো জেনেছিলে যে আমার অমুক বান্দা তোমার কাছে পানি পান করতে চেয়েছিল। কিন্তু তুমি তাকে পানি দাওনি। তুমি কি জানতে না যে তুমি যদি তাকে পানি পান করতে দিতে তাহলে আমাকে তার কাছে পেতে।’ (মুসলিম, হাদিস : ২৫৬৯)

 

যে ব্যক্তি মহান আল্লাহর সবচেয়ে প্রিয় : নবীজি (সা.) বলেছেন, ‘আল্লাহর কাছে সেই ব্যক্তিই সবচেয়ে প্রিয় যে মানুষের বেশি উপকার করে। তাঁর কাছে সবচেয়ে প্রিয় নেক আমল হলো, কোনো মুসলিমের হৃদয়ে আনন্দ দেওয়া। তার বিপদ-কষ্ট দূর করা। তার ঋণ পরিশোধ করে দেওয়া। তার ক্ষুধা দূর করা…।’ (মাজমাউজ জাওয়াইদ : ৮/১৯১)

 

যে কাজে দানের সওয়াব মিলে : রাসুল (সা.) বলেন, দুজন মানুষের মধ্যে বিবাদ মিটিয়ে ন্যায়-সম্প্রীতি প্রতিষ্ঠা করা দান বলে গণ্য। কোনো মানুষকে তার বাহন পরিচালনা করতে সাহায্য করা দান বলে গণ্য। কারো বাহনে তার জিনিসপত্র তুলে দেওয়া দান বলে গণ্য। সুন্দর আনন্দদায়ক কথা দান বলে গণ্য। মসজিদে গমনের জন্য প্রতিটি পদক্ষেপ দান বলে গণ্য। রাস্তা থেকে কষ্টদায়ক দ্রব্য সরিয়ে দেওয়া দান বলে গণ্য। (বুখারি, হাদিস : ২৯৮৯)

 

যে আমলে ক্ষমা মেলে : নবীজি (সা.) বলেছেন, ‘এক ব্যক্তি রাস্তায় চলতে চলতে একটি কাঁটাযুক্ত ডাল দেখতে পায়। সে ডালটি সরিয়ে দেয়। আল্লাহ তার এ কাজ কবুল করেন। তাকে ক্ষমা করে দেন। (বুখারি, হাদিস : ৬৫২)

 

জীব-জন্তুর সেবায় যে লাভ : যেকোনো জীব-জন্তুর সেবাতেই সওয়াব রয়েছে। রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘যেকোনো প্রাণের সেবাতেই তোমরা সওয়াব পাবে।’ (বুখারি, হাদিস : ২৩৬৩)

 

যে আমলে অবিরাম সাহায্য আসতে থাকে : রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেন, ‘যতক্ষণ একজন মানুষ অন্য কোনো মানুষের সহযোগিতায় নিয়োজিত থাকে, ততক্ষণ মহান আল্লাহ তার সহযোগিতায় থাকেন।’ (মুসলিম, হাদিস : ২৬৯৯)

 

যে আমলে দয়া লাভ হয় : রাসুল (সা.) বলেছেন, ‘দয়াময় আল্লাহ দয়ালুদের দয়া করেন। তোমরা জমিনবাসীদের ওপর দয়া করো, তাহলে মহান আল্লাহ তোমাদের ওপর দয়া করবেন।’ (তিরমিজি, হাদিস : ১৯২৪)

 

লেখক : মুহাদ্দিস, জামিয়া আম্বরশাহ আল ইসলামিয়া, কারওয়ান বাজার, ঢাকা

প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার পাবে ৩৬ লাখ পরিবার

প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার পাবে ৩৬ লাখ পরিবার

বর্তমান প্রতিদিন ডেস্ক: চলমান করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির মধ্যে গত বছরের মতো এ বছরও প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার হিসেবে ২ হাজার ৫০০ টাকা করে পাবে দেশের ৩৬ বিস্তারিত →

সৌদি হজ্জ ও ওমরা বিষয়ক উপমন্ত্রীর সাথে রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বৈঠক অনুষ্ঠিত

সৌদি হজ্জ ও ওমরা বিষয়ক উপমন্ত্রীর সাথে রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বৈঠক অনুষ্ঠিত

মোঃ জাহাঙ্গীর আলম হৃদয়, সৌদি আরব প্রতিনিধি: সৌদি আরবের হজ্জ ও ওমরা বিষয়ক মন্ত্রী ড. আব্দুল ফাত্তাহ্ সোলায়মান মাশাত এর সাথে সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের বিস্তারিত →

কুমিল্লায় ট্রাক চাপায় একই পরিবারের তিনজন নিহত

কুমিল্লায় ট্রাক চাপায় একই পরিবারের তিনজন নিহত

মিজানুর রহমান মিনু: কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে ট্রাক চাপায় বাবা, মেয়ে-নাতিসহ একই পরিবারের তিনজন নিহত হয়েছেন। নিহতরা হলেন, কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলার ঢালুয়া ইউনিয়নের সিজিয়ারা গ্রামের নুরুজ্জামানের ছেলে বিস্তারিত →

পবিত্র মাহে রমজান ও নববর্ষের শুভেচ্ছা জানালেন প্রধানমন্ত্রী

পবিত্র মাহে রমজান ও নববর্ষের শুভেচ্ছা জানালেন প্রধানমন্ত্রী

বর্তমান প্রতিন ডেস্ক: নববর্ষে সবাইকে শুভেচ্ছা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দেশ-বিদেশে যে যেখানেই আছেন সবাইকে জানাই ১৪২৮ বঙ্গাব্দের আন্তরিক শুভেচ্ছা। শুভ নববর্ষ। আজ আবাহনের বিস্তারিত →

পবিত্র রমজান মাসের চাঁদ দেখা গেছে; কাল থেকে শুরু হবে রোজা

পবিত্র রমজান মাসের চাঁদ দেখা গেছে; কাল থেকে শুরু হবে রোজা

বর্তমান প্রতিদিন ডেস্ক: পবিত্র রমজান মাসের চাঁদ দেখা গেছে। আগামীকাল বুধবার থেকে রোজা শুরু হবে। রমজানের চাঁদ দেখা যাওয়ায় আজ এশার নামাজের পর আদায় করতে বিস্তারিত →

ভিডিও দেখতে ক্লিক করুন

সর্বশেষ খবর

Archives

SatSunMonTueWedThuFri
     12
10111213141516
17181920212223
24252627282930
       
  12345
6789101112
2728293031  
       
  12345
6789101112
2728     
       
      1
3031     
   1234
       
    123
45678910
25262728293031
       
  12345
27282930   
       
29      
       
      1
       
    123
18192021222324
       
      1
16171819202122
30      
     12
       
    123
       
14151617181920
21222324252627
28293031   
       
      1
2345678
30      
     12
       
    123
25262728   
       
      1
2345678
9101112131415
3031     
      1
30      
   1234
567891011