এক নজরে দেখে নিন তুঁত ফলের গুণাগুণ

১৮ মার্চ, ২০২০ ১০:০৩ am

বর্তমান প্রতিদিন ডেস্ক:

তুঁত ফল দেখতে অসম্ভব সুন্দর। বসন্তের শুরুতে গাছে নতুন পাতা আসে। তুঁত ফল প্রথম অবস্থায় সবুজ, পরে লাল এবং সম্পূর্ণ পাকলে কালো রং ধারণ করে। যে কোন ছোট টব বা পাত্র এমন কি পলিব্যাগে লাগালেও গাছ সুন্দর বেড়ে উঠে, যেন শুধু ফল দেয়ার জন্যই তার জন্ম। সারা বছরই ফল দেয়। অল্প দিনের মধ্যেই ফল পাকে। পাকা ফল রসালো এবং টক-মিষ্টি । তুঁতের ইংরেজি- Mulberry. মালবেরী অর্থ জাম। বৈজ্ঞানিক নাম: Morusnigra/Morus rubra. Moras indika.

তুঁত গাছের কাণ্ড থেকে উৎপন্ন মঞ্জরী দণ্ডের ছোট ছোট ফুলগুলি ঘন হয়ে ফুটে থাকে। পুরুষ ও স্ত্রী ফুল আলাদা। এক সময় বাংলাদেশের গ্রামে প্রচুর তুঁত গাছ দেখা যেতো। তুঁত গাছের পাতা রেশম পোকার মথকে খাওয়ানো হয়, যার লালা থেকে রেশম তৈরি হয়। রেশম পোকার তৈরি বাসা বা গুটি নানাভাবে প্রক্রিয়া শেষে তা থেকে তৈরি হয় রেশমি সুতা। এই সুতায় তৈরি হয় সিল্ক বা রেশমি কাপড়। বাংলাদেশে তুঁত কখনও ফলের জন্য চাষ করা হয় না।

 

এর আদিবাস চীনে। ভারত, বাংলাদেশ, এশিয়া, আফ্রিকা, ইউরোপ ও আমেরিকার বিভিন্ন স্থানে তুঁতফলের চাষ হয়ে থাকে। তুঁতফলের জুস, জ্যাম জেলি হয়। পৃথিবীর অন্যান্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশের মাটিতে হওয়া তুঁতফল বেশি সুস্বাদু।

 

রাজশাহী, নাটোর, রংপুর, পাবনা, বগুড়া, ঠাকুরগাঁও, ময়মনসিংহ, দিনাজপুর, সিলেটে রেশম পোকার খাদ্যের জন্যই তুঁত গাছের চাষ হয়ে থাকে। তুঁত গাছের পাতা ডিম্বাকার, চমৎকার খাঁজযুক্ত এবং অগ্রভাগ সুঁচালো। এই তুঁত বা মালবেরিকে ‘ব্ল্যাক বেরি’ বলে চড়া দামে চারা বিক্রি করা হয়। এখন অনেক বাসার ছাদেও শোভা পাচ্ছে তুঁত গাছ। শালিক, টিয়া, বুলবুলি, টুনটুনি ও অনেক পাখিরই খুব প্রিয় ফল তুঁত।

 

এই ফলের বেশ কিছু ঔষধি গুণও রয়েছে। যেমন- পাকা ফলের রস বায়ু, পিত্ত, কফ ও জ্বরনাশক হিসেবে কাজ করে । তুঁত গাছের ছাল ও শেকড়ের রস কৃমিনাশক। এছাড়া কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করার জন্য পাকা তুঁতফল বেশ উপকারী। অবশ্য বেশি খেলে ডায়রিয়া হতে পারে।

 

ক্যানসার প্রতিরোধী ফল তুঁত। এই ফল এবং গাছের পাতা ও শেকড়ের স্যাকারাইড মানবদেহে রক্তে শর্করা কমিয়ে স্বাভাবিক মাত্রায় আনতে কার্যকর ভূমিকা পালন করে। আমাদের দেশে তুঁতের নতুন যে জাত আনা হয়েছে তাতে ছোট অবস্থাতেই ফল ধরে এবং সারাবছর ফলন হয়।

 

তুঁত গাছের বাকল দিয়ে প্রাচীনকালে তৈরি করা হতোকাগজ । রেশম পোকার খাদ্য হিসেবে পাতার জন্য যে গাছের চাষ হয় তার কাণ্ড খুবই নরম। বাংলাদেশের আবহাওয়া অনুযায়ী আশ্বিন-কার্তিক মাস তুঁত গাছ লাগানোর উপযুক্ত সময়।

 

দো-আঁশ ও বেলে দো-আঁশ মাটিতে তুঁত গাছ খুব ভালো জন্মে। এছাড়া উঁচু ও সমতল জমিতেও তুঁত চাষ ভালো হয়। আবহাওয়া ও উর্বর মাটির জন্য চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় সবচেয়ে বেশি তুঁত চাষ হয়। বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় সাদা তুঁত, কালো তুঁত ও লাল তুঁত- এই তিন প্রজাতির গাছের ওপর নির্ভর করে রেশম পোকার চাষ করা হয়।

সূএ: আধুনিক কৃষি খামার/akkbd.com

বাংলাদেশ-ভারতের সাতটি সমঝোতা স্মারক সই

বাংলাদেশ-ভারতের সাতটি সমঝোতা স্মারক সই

বর্তমান প্রতিদিন ডেস্ক: বাণিজ্য, জ্বালানি, কৃষিসহ সাত খাতে সহযোগিতার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ও ভারত সাতটি সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) সই করেছে।   বৃহস্পতিবার (১৭ ডিসেম্বর) রাষ্ট্রীয় অতিথি বিস্তারিত →

বাংলাদেশ সরকারি কর্মচারী সমন্বয় পরিষদ, কুমিল্লা জেলা শাখার পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত

বাংলাদেশ সরকারি কর্মচারী সমন্বয় পরিষদ, কুমিল্লা জেলা শাখার পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত

জাহিদুল হাসান কাইয়ুম: বাংলাদেশ সরকারি কর্মচারী সমন্বয় পরিষদ, কুমিল্লা জেলা শাখায় মোঃ আনিছুর রহমানকে সভাপতি ও মোঃ নজরুল ইসলামকে সাধারণ সম্পাদক করে ৬৯ সদস্য বিশিষ্ট বিস্তারিত →

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্টি হচ্ছে ঘূর্ণিঝড়; নাম ‘বুরেভী’

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্টি হচ্ছে ঘূর্ণিঝড়; নাম ‘বুরেভী’

বর্তমান প্রতিদিন ডেস্ক: ঘূর্ণিঝড় ‘নিভার’ দাপট দেখিয়ে ফিরে গেছে এখনো এক সপ্তাহ হয়নি। এরই মধ্যে দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় সৃষ্টি হয়েছে আরো একটি ঘূর্ণিঝড়। বিস্তারিত →

বাজারে আসছে নকিয়া ৬৩০০ ফোরজি

বাজারে আসছে নকিয়া ৬৩০০ ফোরজি

বর্তমান প্রতিদিন ডেস্ক: ফিচার ফোনে ‘স্মার্ট অভিজ্ঞতা’ দিতে বাংলাদেশের বাজারে ‘নকিয়া ৬৩০০ ফোরজি’ অবমুক্ত করছে এইচএমডি গ্লোবাল ওওয়াই।   একই সঙ্গে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সুবিধা বিস্তারিত →

আলী যাকেরের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক

আলী যাকেরের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক

বর্তমান প্রতিদিন ডেস্ক: একুশে পদকপ্রাপ্ত বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শব্দ সৈনিক ও প্রবীণ অভিনেতা নাট্যজন আলী যাকেরের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ বিস্তারিত →

ভিডিও দেখতে ক্লিক করুন

সর্বশেষ খবর

Archives

SatSunMonTueWedThuFri
      1
23242526272829
3031     
   1234
       
    123
45678910
25262728293031
       
  12345
27282930   
       
29      
       
      1
       
    123
18192021222324
       
      1
16171819202122
30      
     12
       
    123
       
14151617181920
21222324252627
28293031   
       
      1
2345678
30      
     12
       
    123
25262728   
       
      1
2345678
9101112131415
3031     
      1
30      
   1234
567891011