একাকী প্রবাস জীবন

১০ এপ্রিল, ২০২০ ০৫:২৬ pm

একাকী দিনে রাতে করোনার কথা ভেবে
কিছুতেই ঘুম চোখে আসেনা
যায় কষ্টে দিন কেটে
আল্লাহ ছাড়া কেউ দেখেনা।
যায় কষ্টে রাত কেটে
দুচোখের কান্না ধরে রাখা যায়না
একাকী এমন করে
ঘরের ভেতরে বসে।
দিন কাটাতে হবে
তা কেউ কোন দিন ভাবেনি
যায় কষ্টে বুক ফেটে
অশ্রু ধরে রাখা যায়না।
একাকী এ জীবনে বেঁচে থাকার জন্য
আল্লাহর রহমত ছাড়া কিছুই দেখিনা
আল্লাহ গুনাহ করেছি মোরা
ভুল গুলি ক্ষমা করে
করোনা নামক যন্ত্রণা থেকে মুক্তি দাওনা।
একাকী প্রবাসে বসে দোয়া করি মোরা সবে
আমাদের তুমি ক্ষমা করে দাওনা।

 

প্রিয় পাঠক আমি অতি ক্ষুদ্র একজন কলম সৈনিক দূরপ্রবাসে আছি বিশ্ব জুড়ে হঠাৎ করে করোনা নামক এমন অন্ধকার নামবে কে তা জানতো, হ্যাঁ এই ঘটনা জানেন একজন তিনি হলেন সারা পৃথিবী সৃষ্টিকারী, মানবজাতির সৃষ্টিকারী মহান আল্লাহ।

 

বিশ্বের প্রভাবশালী জ্ঞানী, মহাজ্ঞানী, বিজ্ঞ, অনাবিজ্ঞ, বিশিষ্টজন, সেলিব্রিটি, বিজ্ঞানী সবাই আজ অজ্ঞান এই ভেবে কোথা থেকে এলো অদৃশ্য শত্রু মহামারী করোনা।

 

যার জন্ম কি ভাবে কেউ বলতে পারছেনা, মাঝে মাঝে শুনা যাচ্ছে মৃদু কন্ঠে এটি চায়নার আবিস্কার, আবার কেউ বলছে আমেরিকার আবিস্কার, আবার এটাও শুনছি এটা সারা বিশ্বে ছড়িয়ে দিতে কাজ করেছে একদল অর্থ লোভী মানুষ নামের শয়তান।

 

আবার কেউ কেউ ইউটিউব চ্যানেলে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ভুয়া খবর দিয়ে নিজেকে দেশ ও সমাজের কাছে সেলিব্রেটি বানানোর চেষ্টা করছেন, অপরদিকে মানুষ হচ্ছে আতংকিত।
গুজব ছড়ানো ব্যাক্তিদের আইনের কাছে ধরিয়ে দেয়ার আহবান জানাচ্ছি।

 

সব মিলিয়ে চলছে করোনা নিয়ে আলোচনা সমালোচনা।
আবার অপরদিকে প্রবাস ফেরত কিছু লোকের মাধ্যমে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে করোনা যার ফলে তাদের রাখা হয়েছে ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টে।

 

আবার কেউ করোনার ভয়কে জয় করার জন্য হাস্যরসের ভিডিও বানিয়ে এখানে, সেখানে শেয়ার ও পোস্ট দিচ্ছে।
আসলে যে কি হচ্ছে তা এক মহান আল্লাহ বলতে পারবেন।

 

আল্লাহর লিলা খেলা বুঝা বড় দায়, আজ করোনার ভয়ে সারা পৃথিবীতে চলমান রাজনৈতিক হানাহানি, সন্ত্রাস, হত্যা, নির্যাতন, ধর্ষণ, জংগীবাদ, সড়ক দুর্ঘটনা, ঘুষ বানিজ্য, ক্যাসিনো, মদের আডডা, জুয়ার আড্ডা, গাজা বিক্রি, গাজা ক্রয়, পতিতালয় সহ শত অপকর্ম বন্ধ হয়েছে।

 

কারন করোনা ভাইরাস এমনি একটি রোগ যাহা একজনের মাধ্যমে অপরের ব্যাবহার করা যে কোন জিনিসের মাধ্যমে তা ছড়াতে পারে, এই ভয়ে আজ সবাই যার যার জীবন বাঁচানো নিয়েই ব্যস্ত, সময় কাটছে ঘরে ঘরে। কেউ কারো গায়ে ভয়ে হাত দেয়া থেকে বিরত থাকতে হবে, তাই সব বন্ধ।

 

সকল দেশের সরকার বাহাদুরদের অনেকটা হয়রানি বন্ধ করে দিয়েছে আল্লাহর দেয়া এই অদৃশ্য করোনা।
কমেছে প্রশাসনের হয়রানি, এখন বেড়েছে পেরেশানি দেশ ও জাতিকে করোনা ভাইরাস থেকে মুক্ত রাখতে রাত দিন কষ্ট করে যাচ্ছেন সবাই, পাড়া, মহল্লায়,হাট, বাজার, জনসমাগম, বিয়ে, সভা, সমাবেশ বন্ধ রাখতে লকডাউন দিয়ে চেষ্টা করছেন সাধারণ মানুষদের সচেতন করতে। আসুন নিজেরাও সাবধানতা অবলম্বন করি, মুখে মাস্ক, সাবান ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যাবহার করি। স্থানীয় প্রশাসনের কাজে সহযোগিতা করি, ঘরে থাকি, নিরাপদ থাকি।

একি চিত্র প্রবাসেও কর্মহীন অবস্থায় ঘরে বসে ইবাদতের মধ্য দিয়ে কাটছে দিন, সকল কিছুর পরেও দেশে থাকা মা, ভাই, বোন, স্ত্রী, সন্তান সকলের কথা মনে হলে শান্তি পাইনা, মোবাইলের মাধ্যমেই চলে খবরাখবর।

অনেক প্রবাসী নীরবে কর্মহীন অবস্থায় অসহায় ভাবে খেয়ে-না খেয়েও ঘরের মাঝে দিন পার করছে।

 

তার ব্যাতিক্রম আমি বা আমরা কেউ নই-কে দিবে আশা, কি দিবে ভরসা-কার কাছেও বা যাবে সবাই। এক মহান আল্লাহর অশেষ রহমত ছাড়া কোন উপায় নেই।

দুরপ্রবাসে বসে সময় কাটেনা তাই বাড়িতে কল দিয়ে মনের শান্তি খোঁজার চেষ্টা করি।

 

দুরপ্রবাসে বসে ৯ এপ্রিল ২০২০ দুপুরে দেশে থাকা আমার একমাত্র স্নেহময় কন্যা তাসনীম আলম জারার সাথে ইমুতে ভিডিও কলে কথা বলার সময় দেখি সে নামাজের মাচলায় বসে আছে জানতে চাইলাম মা তুমি কি করছো উত্তরে সাড়ে তিন বছরের শিশু হাসি দিয়ে বলছে বাবা আমি আল্লাহকে বলছি সবাইকে যেন ভালো রাখে, সুস্থ রাখে, তোমাকে ভালো রাখে, আবার যেন বাড়ি আসতে পারো। আবার এটাও বলছে বাবা তুমি এখন বাড়ি এসোনা, বল্লাম কেন, উত্তরে বলছে করোনা তুমি জানোনা।
মেয়ের কথা শুনে দুচোখের পানি ধরে রাখতে পারিনি। জানিনা মহান আল্লাহ আবারও দেশে রেখে আসা প্রিয়জনদের কাছে যাওয়ার সুযোগ রেখেছেন কিনা, আবার নিজে দেশে গিয়ে প্রিয়জনদের পাশে পাবো কিনা। প্রতিটি মুহুর্তে একাকী প্রবাস জীবনে আতংকে কাটছে দিন।

 

হে আল্লাহ সবাইকে হেফাজত করুন এবং সুস্থ ও নেক হায়াত দান করুন। একদিন তো দুনিয়া ছেড়ে যেতেই হবে, অবুঝ শিশু সেও আজ করোনার ভয়ে তোমার দরবারে ক্ষমা চাইছে। ক্ষমা করুন, তোমার প্রিয় হাবীব ও পবিত্র মাহে রামাদানের উচিলায় ক্ষমা করুন।
আমরা গুনাহগার তুমি তো রহমান।

 

লেখক পরিচিতি: মোঃ জাহাঙ্গীর আলম হৃদয়

সাংবাদিক, নাট্যকার, লেখক, কবি
পাবলিক রিলেশন অফিসার – DMC, বাথা, রিয়াদ
মার্কেটিং ডিরেক্টর -EDC -বাথা, রিয়াদ, সৌদি আরব

ভিডিও দেখতে ক্লিক করুন

সর্বশেষ খবর

Archives

SatSunMonTueWedThuFri
    123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031
       
  12345
27282930   
       
29      
       
      1
       
    123
18192021222324
       
      1
16171819202122
30      
     12
       
    123
       
14151617181920
21222324252627
28293031   
       
      1
2345678
30      
     12
       
    123
25262728   
       
      1
2345678
9101112131415
3031     
      1
30      
   1234
567891011